Events

সমগ্র দেশের ‘আপ’ কর্মী ও সমর্থকদের উদ্দেশ্যে রাষ্ট্রীয় সংযোজক অরবিন্দ কেজরিওয়ালের সম্বোধন

দিল্লির হোম আইসোলেশন পদ্ধতি করোনাকে পরাস্ত করতে এক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে, হোম আইসোলেশন অর্থাৎ রোগীকে নিজের হাল -এ ছেড়ে দেওয়া নয়, পর্যাপ্ত সরকারি সহযোগিতার দ্বারা রোগীর বাড়িতেই প্রতিনিয়ত খেয়াল রেখে রোগীকে সুস্থ করে তোলা, এবং তা সফল করতে সব থেকে বেশি প্রয়োজন হল পালস অক্সিমিটার। যা দিল্লিতে কেজরিওয়াল সরকার হোম আইসোলেশনে থাকা সমস্ত রোগীর কাছে পৌঁছে দিয়ে করোনাকে নিয়ন্ত্রণ করতে সফল হয়েছে।

১৫ই আগস্ট স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে সমগ্র দেশের সকল ‘আপ’ সমর্থক ও কর্মীদের উদ্দেশ্যে
দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী মাননীয় অরবিন্দ কেজরিওয়াল লাইভ সম্বোধনে জানালেন, এই বছর রবিবার ১৬ই আগস্ট তিনি নিজের জন্মদিন পালন করবেন না।

কেজরিওয়াল সমগ্র দেশের আম আদমী পার্টির কর্মী/সমর্থকদের আবেদন করলেন:

“দয়া করে এই বছর অভিনন্দন জানাতে বাড়ি আসবেন না। ফোন ও সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমেই অভিনন্দন জানাবেন, কিন্তু যদি আমাকে উপহার দেওয়ারই হয়, তবে আম আদমী পার্টিকে পালস অক্সিমিটার দান করুন যা দিয়ে আমরা দেশের প্রত্যেকটি গ্রামে একটি করে পালস অক্সিমিটার পৌঁছে দিয়ে করোনার হাত থেকে মানুষের প্রাণ রক্ষা করতে পারি।”

সকল রাজ্য এবং জেলার দায়িত্ব প্রাপ্তদের কাছে অনুরোধ করলেন এই ব্যবস্থাকে চালু করতে এবং প্রত্যেক গ্রামে অক্সিজেন পরীক্ষা কেন্দ্র গড়ে তুলতে যেখানে সাধারণ মানুষ অক্সিজেনের মাত্রা পরীক্ষা করতে পারবেন এবং প্রয়োজনে ‘আপ’ এর ‘অক্সি মিত্র’রা হাসপাতালে বেড বা অ্যাম্বুলেন্সের ব্যবস্থা করে দিতে পারবে।

তিনি জানান,
“আমাদের লক্ষ্য কোনো সরকারের গৃহীত পদক্ষেপের ঘাটতি খোঁজা নয় বরং করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সেই সরকারের কাজে সাহায্য প্রদান করা।”

করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ের শুরু থেকেই উনি বলে এসেছেন, “এই লড়াইয়ে কোনো একজনের চেষ্টায় জয়লাভ করা সম্ভব নয়। দল, মত, জাত, ধর্ম নির্বিশেষে সকলকে একসাথে এসে লড়তে হবে। রাজনৈতিক মতভেদ ভুলে করোনা কে পরাস্ত করতে হবে।” আর তিনি সেই পথ অবলম্বন করে, বিশেষজ্ঞদের অক্লান্ত পরিশ্রমের মাধ্যমে করোনার বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন। সাথে সাথে অন্য রাজ্যগুলিতেও যাতে করোনায় প্রাণহানির সংখ্যা কমানো যায় তার প্ৰচেষ্টা স্বরূপ এই আবেদন রেখেছেন।

তাঁর এই আবেদনের পরের দিনই অর্থাৎ ১৬ই আগস্ট তাঁর জন্মদিনের দিন সমগ্র দেশের আম আদমী পার্টির কর্মী ও সমর্থকেরা ৩০,০০০ পালস অক্সিমিটার দান করলেন যা দিয়ে দেশের ত্রিশ হাজার গ্রামে ‘আপ’ এর ‘অক্সি মিত্র’রা অক্সিজেন পরীক্ষা কেন্দ্র শুরু করতে পারবে।

Click to comment

Leave a Reply

POPULAR

ব্যবস্থা পরিবর্তন কেবলমাত্র দুটি শব্দ নয়, এক সংকল্প। ঠিক যেমন আম আদমী পার্টি কোনো রাজনৈতিক দল নয়, এক রাজনৈতিক আন্দোলন। দেশের দ্বিতীয় স্বাধীনতা আন্দোলন। দেশের চিরাচরিত রাজনীতির পটভূমির পরিবর্তন ঘটিয়ে এক নতুন সমাজ গড়ার আন্দোলন। 'আপ' রাজনীতি করতে নয় রাজনীতির পরিভাষা বদলের জন্যই জন্ম নিয়েছে। বর্তমানে বহু ক্ষেত্রে বিভিন্ন রাজনৈতিক চাপে গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভ ক্ষমতাসীন পক্ষকে কেন্দ্র করেই খবর সম্প্রসারণ করে। তাই সাধারণ মানুষের কাছে ধর্মের রাজনীতির সম্প্রচার করে এবং কর্মের রাজনীতির রূপায়ণের সত্যতাকে গোপন করে। এই কারণেই 'ব্যবস্থা পরিবর্তন' এর প্রকাশ। 'আপ' এর বাংলা তথা দেশব্যাপী উন্নয়ন মূলক নতুন রাজনীতি স্থাপনের লড়াইয়ের এক গুচ্ছ খবর, দিল্লি সরকারের বিভিন্ন দৃষ্টান্তমূলক কর্মকান্ডের বিবরণ তথা 'আপ' ও তার বৈকল্পিক রাজনীতির উপর প্রবন্ধ নিয়েই এই মাসিক পত্রিকার সূচনা। দলের সদস্যদের জন্য, 'আপ' পশ্চিমবঙ্গ শাখার একটি প্রয়াস।

Copyright © 2020 Byabastha Paribartan.

To Top